রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৩:২৭ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
দেশের সকল জেলা, থানা/উপজেলা/ইউনিয়ন এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে "দি সকাল বিকাল " এ চীফ রিপোর্টার, স্টাফ রিপোর্টার ও প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে আগ্রহী প্রার্থীরা আজি যোগাযোগ করুন drsubratabogra@gmail.com । প্রিয় পাঠক আপনিও “দি সকাল বিকাল” নিউজকে পাঠাতে পারেন আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া অপ্রীতিকর ঘটনার কথা জানাতে পারেন আপনার অভিজ্ঞতা অথবা আপিও হতে পারেন একজন সাংবাদিক । দি সকাল বিকাল এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ আমাদের সাথেই থাকুন
শিরোনামঃ
হারিয়ে যাচ্ছে বেদা জয়পুরহাটে সাংবাদিক আবদুল আলীম কে হত্যার হুমকি, থানায় জিডি আমি যদি ভাল কাজ করে থাকি তাহলে এবার ও চাঁদগ্রামবাসী আমাকেই বিপুল ভোটে জয় করবে — চেয়ারম্যান আব্দুল হাফিজ তপন ফুলবাড়ীতে বন‍্যায় আমনের ক্ষেত নষ্ট উলিপুরে সরকারি চাল কালো বাজারে বিক্রির সময় আটক-১, অভিযুক্ত আ’লীগ নেতার ছেলের বিরুদ্ধে মামলা জয়পুরহাটে শিশু অপহরণ মামলায় যুবকের ২৫ বছর কারাদণ্ড ভেড়ামারা পৌর ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের কর্মী সভা অনুষ্ঠিত। পাঁচবিবিতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আগ্নেয়াস্ত্রসহ আন্তঃজেলার কুখ্যাত ডাকাত শহিদুল ইসলাম (কারেন্ট)সহ গ্রেফতার-৩ এমপি পনির উদ্দিন এর অবদানে কুড়িগ্রামবাসীর জন্য ৩টি আনন্দের খবর কালাইয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

জয়পুরহাটে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করায় বাদীকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড।

জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ / ২৬১ বার
আপডেট সময় সোমবার, ২ নভেম্বর, ২০২০

জয়পুরহাটে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করার দায়ে মামলার বাদীকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার বিকেলে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা জজ রুস্তম আলী এ রায় দেন। জয়পুরহাট আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওই মিথ্যা মামলার বাদী ও দণ্ডপ্রাপ্ত নারী হলেন মোছা. লিলিফা বানু (৩৫)। তিনি জয়পুরহাট সদর উপজেলার সুন্দুরপুর গ্রামের শাহজাহান আলীর স্ত্রী। গত বছরের ২৭ জুন একই গ্রামের বাসিন্দা রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে আদালতে ওই মিথ্যা ধর্ষণ মামলাটি করেছিলেন তিনি।
মামলার অভিযোগে বলা হয়েছিল, গত বছরের ২২ জুন লিলিফা বানুর স্বামী ধামইরহাট উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামে তার খালার বাড়িতে যান। সেদিন রাতে খাওয়া শেষে লিলিফা বানু তার পুত্র সন্তানকে নিয়ে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ১২টার দিকে একই গ্রামের রুহুল আমিন প্রাচীর টপকে লিলিফা বানুর ঘরে ঢুকে তাকে ঘুমন্ত অবস্থায় ধর্ষণ করেন। লিলিফার চিৎকারে পাশের ঘরে থাকা বোন ও বোনজামাই ছুটে এসে রুহুল আমিনকে ধরে ফেলেন।
নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিশেষ কৌঁসুলি (পিপি) ফিরোজা চৌধুরী বলেন, তদন্তে মামলাটির সত্যতা মেলেনি। আজ সোমবার আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতে বাদী জামিন আবেদন করেন। মিথ্যা মামলা করায় আদালতের বিচারক নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১৭ ধারায় মামলার বাদীকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। আর ওই মিথ্যা ধর্ষণ মামলার আসামিকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত।

জয়পুরহাট আদালতের সরকারি কৌঁসুলি নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডল বলেন, গত মাসে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে পরপর দুটি মিথ্যা ধর্ষণ মামলার বাদীকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সোমবার একই ধরনের ঘটনায় আবারও মামলার বাদীকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এটি একটি যুগান্তকারী রায়। এ রায়ের ফলে মিথ্যা মামলার প্রবণতা কমবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত

Theme Created By ThemesDealer.Com