রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১২:২৪ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
দেশের সকল জেলা, থানা/উপজেলা/ইউনিয়ন এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে "দি সকাল বিকাল " এ চীফ রিপোর্টার, স্টাফ রিপোর্টার ও প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে আগ্রহী প্রার্থীরা আজি যোগাযোগ করুন drsubratabogra@gmail.com । প্রিয় পাঠক আপনিও “দি সকাল বিকাল” নিউজকে পাঠাতে পারেন আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া অপ্রীতিকর ঘটনার কথা জানাতে পারেন আপনার অভিজ্ঞতা অথবা আপিও হতে পারেন একজন সাংবাদিক । দি সকাল বিকাল এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ আমাদের সাথেই থাকুন

সিংড়ায় কাজ শেষ করার আগেই ফাঁটল মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিসৌধে

রিপোর্টারের নাম / ৩৯ বার
আপডেট সময় শনিবার, ১৯ জুন, ২০২১

 নিজস্ব প্রতিবেদক,সিংড়াঃ নাটোরের সিংড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা স্মুতিসৌধ নির্মাণ কাজ শেষ করার আগেই বিভিন্ন জায়গায় ফাঁটল দেখা দিয়েছে। শুরু থেকেই নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করায় এই ফাঁটল ধরেছে বলে ধারণা মুক্তিযোদ্ধা ও স্থানীয়দের। স্থানীয়রা জানায়, এলজিইডি”র আওতায় ৩২ লাখ টাকা চুক্তি মূল্যে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিসৌধ নির্মাণের কাজ পায় মন্ডল এন্টার প্রাইজ নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। তিন বছর আগে কাজ পেলেও শুরু করেন চলতি বছরে। স্বল্প সময়ের মধ্যে তড়িঘড়ি আর নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করায় নির্মাণ কাজ টেকসই হচ্ছে না। ফলে কাজ শেষ করার আগেই অনেক জায়গায় ফাঁটল দেখা দিয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন সংলগ্ন নির্মিত মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিসৌধের কাজ করছেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের শ্রমিকেরা। স্মৃতি স্তম্ভের নীচে ৫টি জায়গায় ফাঁটল ধরেছে। এছাড়াও ফাঁটল ধরেছে স্মৃতি সৌধের প্রবেশ পথের প্লাষ্টার করা অন্তত ৫ থেকে ৬ জায়গায়। নাটোর জেলা পরিষদের সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সালাহ উদ্দিন আল আজাদ ছানা বলেন, কাজের মান খুবই খারাপ হচ্ছে। যেখানে পাথর ও সিমেন্ট দিয়ে ঢালাই দেওয়ার কথা সেখানে ব্যবহার করা হয়েছে নিম্নমানের ইটের খোয়া। যার কারণে ঢালাইয়ের পর পরই ফাঁটল দেখা যাচ্ছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মন্ডল এন্টার প্রাইজের স্বত্বাধিকারী মনিন্দ্রনাথ মন্ডল মনি বলেন, তিন বছর আগে কাজ পেলেও স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের কিছু জটিলতার কারণে কাজ শুরু করতে সময় লেগেছে। যেসব জায়গায় ফাঁটল দেখা দিয়েছে নির্মাণ কাজ শেষে ফিনিসিং করার সময় ওই ফাঁটল জায়গাগুলো ঠিক করে দেওয়া হবে। আশা করছি পরবর্তীতে কোন সমস্যা হবে না। উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ বিপ্লব আলী বলেন, কাজটি চলমান আছে। এর মধ্যে ৮০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বাকি কাজ শেষ হলে ওই ফাঁটলের জায়গাগুলোর সমাধান করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত

Theme Created By ThemesDealer.Com